রবিবার ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম >>
শিরোনাম >>

কলাপাড়ায় স্কুল রক্ষার দাবীতে মানববন্ধন

এস এম আলমগীর হোসেন কলাপাড়া পটুয়াখালী প্রতিনিধি   |   শনিবার, ০৭ অক্টোবর ২০২৩ | প্রিন্ট  

কলাপাড়ায় স্কুল রক্ষার দাবীতে মানববন্ধন

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় স্কুল রক্ষার দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছেন গ্রামবাসীরা। শনিবার দুপুরে উপজেলার লালুয়া ইউনিয়নের এস.কে.জে.বি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের স্থানান্তর সীমানার দুরত্ব কমিয়ে ১ কিলোমিটারের মধ্যে রাখার দাবীতে এ কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়। স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা বাজারে প্রায় ঘন্টা ব্যাপী মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচীতে শতাধিক গ্রামবাসীসহ শিক্ষার্থী, আভিভাবকরা অংশগ্রহন করে।

এসময় বক্তব্য রাখেন, এস.কে.জে.বি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মো.শাহাবুদ্দিন হাওলাদার, মুক্তিযোদ্ধা বাজার কমিটির সভাপতি সৌরভ বিশ্বাস, ইউপি সদস্য মো.মাসুদ হাওলাদার, বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সভাপতি মো.হাবিবুর রহমান হাওলাদার, অভিভাবক মোসা.পলাশী আক্তার, মো.জসিম গাজী প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, বেশি দূরত্বে বিদ্যালয়টি স্থানান্তর করলে ভেঙ্গে পড়বে গ্রামীণ শিক্ষা ব্যাবস্থা। তবে দুরত্ব কমিয়ে, ৯ নং ওয়ার্ডের চান্দুপাড়ায় স্থানান্তর করার জোর দাবী জানান তারা।
উল্লেখ্য,সরকারের মেঘা প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষ জমি অধিগ্রহন অব্যাহত রেখেছে। এতে উপজেলার লালুয়া ইউনিয়নের চান্দুপাড়া গ্রামের এস.কে.জে.বি মাধ্যমিক বিদ্যালয় অধিগ্রহনের আওতায় পড়েছে। এ সুযোগে একটি কুচক্রি মহল বিদ্যালয়টি ৭ কিলোমিটার দুরে স্থানান্তর করার পায়তারা চালাচ্ছে বলে মানববন্ধনে অংশগ্রহনকরীরা জানিয়েছেন।
###


কলাপাড়ায় পুর্নবাসনের দাবীতে মানববন্ধন ও সমাবেশ

এস এম আলমগীর হোসেন, পটুয়াখালীঃ কলাপাড়ায় পায়রা বন্দর নির্মাণে ভূমি অধিগ্রহনে ক্ষতিগ্রস্থ গৃহহীন পরিবার সমূহের পুনর্বাসনের দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার ৭অক্টোবর বেলা ১০টায় কলাপাড়া প্রেসক্লাব চত্ত্বরে কলাপাড়া সম্মিলিত নাগরিক অধিকার জোট ও পায়রা বন্দর নির্মান অধিগ্রহনে ক্ষতিগ্রস্থ গৃহহীন পরিবারসমূহের উদ্যোগে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধনে বক্তারা উল্লেখ করেন সরকার তৃতীয় সমুদ্র বন্দর নির্মানের জন্য ভূমি অধিগ্রহন করায় এল এস নং ১৪/২০১৫-১৬, ১৬/২০১৫-১৬, ০৭/২০১৬-১৭-এর অধীনে লালুয়া ইউনিয়নের নয়াকাটা, বানাতীপাড়া, চান্দুপাড়া মৌজা জেএলনং ১৫, ১৬, ১৭তে অধিগ্রহনে ক্ষতিগ্রস্থদের বসত ঘর-বাড়ি অন্তভূক্ত হয়, যাহা যৌথ তালিকায় উল্লেখ রয়েছে। যেখানে ক্ষতিগ্রস্থদের সকল ঘর-বাড়ি বিদ্যমান ছিলো যা বিগত দিনে সরকার পায়রা বন্দর নির্মানের জন্য অধিগ্রহন করেছে বিধায় এখন তারা খোলা আকাশের নীচে বসবাস করতেছে, ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে কিন্তু দূর্ভাগ্যের বিষয় ক্ষতিগ্রস্থ হিসেবে তারা কোন ঘর বরাদ্ধ পায়নি, তাই এসব অসহায়-গরীব লোকজনদের যদি তাদের ক্ষতিগ্রস্থ নামের পাশে পুনর্বাসন দিয়ে অসহায় পরিবারের সদস্যদের নিয়ে মাথা গোঁজার ঠাই হয়, এজন্য সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের নিকট জোড় দাবী জানান বক্তারা। ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধনে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের শতাধিক সদস্য,ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার গনমাধ্যম কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এ মানববন্ধনে কলাপাড়া সম্মিলিত নাগরিক অধিকার জোটের সভাপতি সৈয়দ মো. রেজাউল করিমের সভাপতিত্বে ও সাংগঠনিক সম্পাদক সংবাদকর্মী সৈয়দ রাসেলের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, লালুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. শওকত হোসেন তপন বিশ্বাস, লালুয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মো.তারিকুল ইসলাম খান, সাধারন সম্পাদক মো. ফোরকান প্যাদা, সিনিয়র সাংবাদিক মো. এনামুল হক, সিনিয়র সাংবাদিক ও পটুয়াখালী-৪, কলাপাড়া আসনে ১৪ দলীয় জোটের মনোনয়ন প্রত্যাশী বিশ্বাস শিহাব পারভেজ মিঠু, কলাপাড়া সম্মিলিত নাগরিক অধিকার জোটের সহ-সভাপতি আর্কিটেক মো. ইয়াকুব খান, ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের পক্ষে মো. জসিম উদ্দিন, মো. শামীম, মো. বেল্লাল গাজী প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন, উপরোক্ত এল,এ ও জেএল মৌজা একই দাগ-খতিয়ানে ক্ষতিগ্রস্থদের অনেকেরই তাদের বসত-বাড়ি সংলগ্ন পুকুর ও গাছের ক্ষতিপূরন সরকার দিলেও সহায়-সম্পত্তি হারানো ক্ষতিগ্রস্থরা কোন আবাসন কিম্বা পুনর্বাসন নামের তালিকায় নেই, দু:খের বিষয় এসব সহায়-সম্বলহীন মানুষগুলো তাদের আশ্রয়স্থল শেষ ঠিকানা হারিয়ে জীবিকা নির্বাহ করা খুবই কষ্টসাধ্য হয়ে দাড়িয়েছে। তাই সরেজমিনে তদন্ত করে ক্ষতিগ্রস্থ ১২৯জন ওয়ারীশদের মধ্যে অন্তত:পক্ষে কিছু সংখ্যক আবাসন কিম্বা পুনর্বাসন বরাদ্ধ পায় তাহার সু-ব্যবস্থা করার জন্য কতৃপক্ষের নিকট বিনীত দাবী জানান।

বক্তারা আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে দেশের উন্নয়নের স্বার্থে পায়রা বন্দরে ১২৯ টি পরিবার তাদের ভিটেমাটি সবকিছু দিয়ে দিয়েছে। কথাছিলো ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোর জমির মুল্যসহ আবাসন দেওয়া হবে। কিন্তু দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তাদের নানা অনিয়মের কারনে এই ১২৯ টি পরিবার এখন আবাসন বি ত হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে। তাই বক্তারা ১২৯ টি পরিবার যাতে আবাসন পায় সে বিষয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখহাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Facebook Comments Box

Posted ৮:২৩ অপরাহ্ণ | শনিবার, ০৭ অক্টোবর ২০২৩

Desh24.news |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯  
এম আজাদ হোসেন প্রকাশক
মো: শরিফুল ইসলাম নির্বাহী প্রধান
মোঃ ইনামুল হাসান প্রধান উপদেষ্টা
বার্তা ও সম্পাদকীয় কার্যালয়

শ্রীসদাস লেন,বাংলাবাজার , ঢাকা-১১০০/ আঞ্চলিক কার্যালয়, পুখরিয়া, ঘিওর, মানিকগঞ্জ।

হেল্প লাইনঃ +৮৮-০১৭২১৬০৮০০২/০১৯১১২২৭৯০৭

E-mail: infodesh24@gmail.com